সোনামুখী পুরসভার মেয়াদ শেষ, প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নিলেন বিদায়ী পুরপ্রধান - SAIKOTBHUMI

Breaking

Tuesday, May 26, 2020

সোনামুখী পুরসভার মেয়াদ শেষ, প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নিলেন বিদায়ী পুরপ্রধান

বাঁকুড়া : সোনামুখী পুর বোর্ডের মেয়াদ শেষ প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহন করলেন বিদায়ী পুরপ্রধান সুরজিৎ মুখার্জী ও উপ পুর প্রধান অমর নাথ সু।  বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর হিসেবে এই দুজন সদস্য এবং পুর প্রধান হলন চেয়ারপারসন অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর। নিয়ম অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই পুর নির্বাচন হওয়ার কথা। 

 কিন্তু করোনা ভাইরাসের নজিরবিহীন আক্রমনে এখন আপাতত স্থগিত পুর নির্বাচন। কিন্তু পুরসভা পরিচালনার জন্য অ্যাডমিনিস্ট্রেটর নিয়োগ করে পুরসভা গুলি পরিচালনার   সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী  আজ সোনামুখী পুর বোর্ডের প্রশাসক হিসেবে কাজ শুরু হলো।  সরকারি নির্দেশ মেনেই গঠিত হলো এডমিনিস্ট্রেটর বোর্ড।  সোনামুখী পুরসভার ইতিহাসে এমন ঘটনা অতীতেও ঘটেছে বলেই  জানা গেছে। ৭৭ সালে বামফ্রন্ট রাজ্যের ক্ষমতায় এলে সোনামুখী পুরসভায় প্রশাসক বোর্ড পরিচালনা করেছিল সোনামুখী পুরসভা।  প্রায় তিনবছর  অ্যাডমিনিস্ট্রেটর এর মাধ্যমে পরিচালিত হয়েছিল্ সোনামুখী পুরসভা। সোনামুখী ব্লকের বিডিও পরিচালনা করেছিলেন সোনামুখী পুরসভার।  দীর্ঘ প্রায় চার দশকের বেশি সময় পর করোনা পরিস্থিতিতে সোনামুখী পুরসভায় ফের অ্যাডমিনিস্ট্রেটর হিসাবে বোর্ড পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হলো। তবে বোর্ড পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের নির্দেশ মত বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর হিসাবে বিদায়ী পুরপ্রধান ও বিদায়ী উপ পুরপ্রধান  এই দুই সদস্যের মাধ্যমে।  অ্যাডমিনিস্ট্রেটর বোর্ডের চেয়ারপারসন দায়িত্ব প্রাপ্ত বিদায়ী পুরপ্রধান সুরজিৎ মুখার্জি বলেন, সরকারি নির্দেশ মেনে বোর্ড গঠন হয়েছে। যেভাবে পাঁচ বছর সোনামুখী পুর এলাকায় ধারাবাহিক উন্নয়নের কাজ হয়েছে  আগামী দিনেও  অ্যাডমিনিস্ট্রেটর বোর্ড সেই ভাবেই সোনামুখী পৌরসভা কাজ করবে বলেও দাবি করেন তিনি। 

শাসকদলের জনপ্রতিনিধিদের বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর পদে বসানো অগণতান্ত্রিক বলেই দাবি করলেন সোনামুখী পুরসভার সিপিএমের প্রাক্তন পুরপ্রধান কুশল ব্যানার্জি। তিনি বলেন সোনামুখীর পুরসভার ইতিহাসে এর আগেও অ্যাডমিনিস্ট্রেটর বসানো হয়েছিল তবে সে ক্ষেত্রে সরকারি আধিকারিক কে সোনামুখীর পুরো বোর্ড চালানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।   জনপ্রতিনিধিদেরকে অ্যাডমিনিস্ট্রেটর পদে বসানো নিয়ে সমালোচনার করলেন প্রাক্তন সিপিআইএম পুরপ্রধান।
সোনামুখী পৌরসভায় পাঁচ বছর ধরে উন্নয়ন তো হয়নি শুধু টাকা লুট হয়েছে। জনপ্রতিনিধিদেরকে অ্যাডমিনিস্ট্রেটর পদে বসিয়ে টাকা লুটের আরও একটু সুযোগ পেল   ঠিক এই ভাষাতেই সমালোচনা করলেন সোনামুখী নগর মন্ডলের বিজেপি সভানেত্রী সম্পা গোস্বামী।  পুরসভার নির্বাচন হলে সোনামুখী পুরসভার পুরো বোর্ড পরিচালনা করত বিজেপি এমনও দাবি তুললেন বিজেপি নেত্রী শম্পা গোস্বামী।


Pages