পরিযায়ী শ্রমিকরা ১০০ দিনের কাজ পেয়ে অত্যন্ত খুশি । - SAIKOTBHUMI

Breaking

Monday, May 25, 2020

পরিযায়ী শ্রমিকরা ১০০ দিনের কাজ পেয়ে অত্যন্ত খুশি ।



বাঁকুড়া : ভিন রাজ্যে পরিযায়ী শ্রমিকরা 100 দিনের কাজ পেয়ে অত্যন্ত খুশি । 

লকডাউনে আটকে থাকা ভিন রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকরা বাড়ি ফিরে 100 দিনের কাজ করতে পেরে অত্যন্ত খুশি । বাঁকুড়া জেলার বেলিয়াতোড় পঞ্চায়েতের অন্তর্গত পলসোনা গ্রামে 100 দিনের কাজ শুরু হওয়ায় একদিকে যেমন খুশি গ্রামের জব কার্ড হোল্ডারা তেমনি খুশি ভিন রাজ্য থেকে ফেরা পরিযায়ী শ্রমিকরা । 


লকডাউনের ফলে দীর্ঘদিন ধরে কাজ হারিয়ে আর্থিক সঙ্কটে পড়তে হয়েছিল এই সমস্ত অসহায় সাধারণ মানুষগুলোকে । তার ওপর যে সমস্ত পরিযায়ী  শ্রমিকরা ভিন রাজ্য থেকে নিজের বাড়িতে ফিরেছিলেন তাদের হাতেও কোনো কাজ ছিল না ।  ফলে আর্থিক সংকটের মধ্য দিয়ে দিন কাটাতে হচ্ছিল তাদের ।  অবশেষে বড়জোরা পঞ্চায়েত সমিতি এবং বেলিয়াতোড় পঞ্চায়েতের উদ্যোগে গ্রামে শুরু হয়েছে 100 দিনের কাজ ।  স্বাভাবিকভাবে খুশির হওয়া জব জব কার্ড হোল্ডাররা । 

এর পাশাপাশি বড়জোরা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য কালিদাস মুখোপাধ্যায় মহাশয় জব কার্ড হোল্ডারদের সচেতন করতে এবং করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে ব্যক্তিগত উদ্যোগে তাদের হাতে মাক্স বিলি করেন এবং তাদেরকে সচেতনতা বার্তা দেন যাতে করে সকলেই দূরত্ব বজায় রেখে তারা কাজ করেন । 


100 দিনের কাজের মধ্য দিয়ে ড্রেন তৈরি করা হচ্ছে এরফলে উপকৃত হবে বেলিয়াতোড় জঙ্গল লাগোয়া গ্রামবাসীরা । বুনো হাতি অনেক সময় লোকালয়ে প্রবেশ করে ফলে ফসলের যেমন ক্ষতি হয় তেমনি মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটে । এই ব্রেন তৈরী হওয়ার ফলে বুনোহাতি সহজে গ্রামে প্রবেশ করতে পারবে না । এর পাশাপাশি বৃষ্টির জল নালা দিয়ে বেরিয়ে চাষের কাজে ব্যবহার করা যাবে ফলে উপকৃত হবে চাষিরাও ।  পঞ্চায়েতের এই উদ্যোগ ও পঞ্চায়েত সমিতির এই উদ্যোগকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা ।

ভিন রাজ্য থেকে ফেরা দুই পরিযায়ী শ্রমিক বলেন , দীর্ঘদিন লকডাউনে ভিন রাজ্যে আটকে ছিলাম বাড়ি ফিরে আর্থিক সংকটের মধ্যে দিন কাটছিল ।  অবশেষে 100 দিনের কাজ পেয়ে আমি অত্যন্ত খুশি এখন সংসারে আর্থিক সচ্ছলতা ফিরে এসেছে । 

বড়জোরা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য কালিদাস মুখোপাধ্যায় বলেন , ভিন রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকরা বাড়ি ফিরে 100 দিনের কাজ পেয়ে তারা অত্যন্ত খুশি । এছাড়াও তিনি বলেন লোকালয়ে হাতির অনুপ্রবেশ ঠেকাতে এই ড্রেন 100 দিনের কাজের মধ্য দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে । ফলে গ্রামবাসীরা ভীষণভাবে উপকৃত হবেন ।





Pages