করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে টানা ছুটিতে দিঘায় ভিড় পর্যটকদের - SAIKOTBHUMI

Breaking

Sunday, March 8, 2020

করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে টানা ছুটিতে দিঘায় ভিড় পর্যটকদের



রাকা পরিয়ারী,দিঘা :  করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক কাটিয়ে দোলের ছুটি কাটাতে দিঘায় ভিড় জমিয়েছেন পর্যটকেরা। শান্তিনিকেতনেও বন্ধ হয়েছে দোলউৎসব। ফলে পর্যটকেরা দিঘামুখী হয়ে উঠেছেন। তবে পর্যটকেরা থাকছেন প্রশাসনের নজরবন্দী। হোটেলে ঘুরে পর্যটকদের খতিয়ান সংগ্রহ করবে পুলিশ। কোন পর্যটক বিদেশ থেকে এসে থাকলে তা দ্রুত জেলা প্রশাসনের নজরে আনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পুলিশকে  । বিদেশী পর্যটকদের শারীরিক পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকছে দিঘা হাসাপাতারে। করোনা ভাইরাস নিয়ে তৎপর পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন। জেলা শাসক পার্থ ঘোষ জানান, পর্যটকদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা যেমন থাকছে। তেমনই পর্যটকদের নজরদারি থাকছে। বিদেশি পর্যটকদের উপর বিশেষ নজর থাকছে প্রশাসনের। 



           
তাছাড়া দোলের টানা ছুটিতে সৈকত শহর দিঘায় পর্যটকদের জন্যে বাড়ানো হল নিরাপত্তা। দুর্গোপুজোর পরে এই প্রথম টানা চারদিনের ছুটি পেতে চলেছে ভ্রমণ পিপাসু বাঙালি। ফলে দিঘায় যে এবার ভিড় হবে এমন আশাতেই বুক বেঁধেছেন ব্যবসায়ীরা। এবার দোল উৎসব পড়েছে সোম ও মঙ্গলবার। তার আগে রয়েছে শনি ও রবিবার সপ্তাহান্তের ছুটি। করোনা ভাইরাসের কারনে বাংলায় একাধিক দোল উৎসব বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এমনকি বন্ধ হয়েছে শান্তিনিকেতনের মত জায়গায় দোল উৎসব। ফলে টানা ছুটিতে ভিড় বাড়ার আশংকা করেই পর্যটকদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হচ্ছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।
পর্যটকদের নিরাপত্তা দেওয়ার কাজ করছেন নুলিয়ারা।
                   ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি সমুদ্রে তলিয়ে যাওয়ার ঘটনা ভাবিয়ে তুলেছে প্রশাসনিক কর্তাদের। তাই কোনরকম ঝঁকি নিতে চাইছেনা প্রশাসনিক কর্তারা। তাই ইতিমধ্যে দিঘা থানার পক্ষ থেকে স্থানীয় হোটেল ব্যবসায়ীদের নিয়ে বৈঠক করা হয়েছে। পর্যটকদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে হোটেলগুলিতে সিসিটিভি বাধ্যতামূলক করা হয়। পাশাপাশি কোন বিষয়ে সন্দেহ হলে সরাসরি থানায় খবর দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়। এমনকি ভিড় বাড়ায় যাতে হোটেল ভাড়া বাড়িয়ে দেওয়া না হয় সেবিষয়ে নজর দেওয়ার জন্যে হোটেল মালিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষেদর সভাধিপতি তথা উন্নয়ন পর্ষদের সদস্য দেবব্রত দাস জানান, পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্যে নুলিয়াদের সংখ্যা বাড়ানো হল। আগামীদিনে এই সংখ্যা আরো বাড়বে।
            অপরদিকে পর্যটকদের নিরাপত্তা দেওয়ার জন্যে পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে ফের ১১জন নুলিয়া নিয়োগ করল  পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন। ২১জানুয়ারী শারীরিক পরীক্ষার মাধ্যমে নুলিয়া নিয়োগ শুরু করে প্রশাসন। যাদের মূলত সিভিল ডিফেন্সের সার্টিফিকেট তাদেরই নুলিয়া হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। তাছাড়া সাঁতারে দক্ষ তাদের শারীরিক স্বক্ষমতা যাচাই করেই নিয়োগ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে দিঘা,মন্দারমণি,তাজপুর,দিঘা মোহনায় প্রায় ৫৩জন নুলিয়া কর্মরত রয়েছে। তারপরেও পর্যটকদের সমুদ্রে তলিয়ে মৃত্যু ঠেকানো সম্ভব হচ্ছেনা প্রশাসনের। যার ফলে ফের নুলিয়া নিয়োগ করল প্রশাসন। নুিলয়াদের পাশাপাশি থাকছে বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মী এবং স্থানীয় থানার পুলিশ ও সিভিক ভলেন্টিয়ার। ওয়াচটাওয়ারগুলি থেকে সিভিক ভলেন্টিয়ার পর্যায়ক্রমে নজরদারি চালাবে।




     
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিঘাকে আন্তর্জাতিক পর্যটন কেন্দ্রের রুপ দেওয়ার জন্যে একাধিক প্রকল্প গ্রহণ করে দিঘাকে নতুন ভাবে পর্যটকদের সামনে তুলে ধরেছেন। পাশাপাশি পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়ার জন্যে জেলা প্রশাসনকে জেলা সফরে এসে নির্দেশদেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। সেইসঙ্গে দিঘার পাড়ে পর্যটকদের সতর্ক করার জন্যে সাইরেন বাজানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ দেওয়ার পরেই দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদ দিঘা পুলিশের হাতে সাইরেন তুলে দিয়েছে। এবার তলিয়ে যাওয়া পর্যটকদের সমুদ্র থেকে উদ্ধার করতে নুলিয়া নিয়োগের কাজ শুরু করেছে জেলা প্রশাসন।

Pages